ena
maisha
bioMed
ব্রেকিং নিউজ

মেদহীন পেট পেতে করণীয়

ঢাকা, ১৬ মে, এবিনিউজ : গরমে সুস্থ থাকতে সকালে হাঁটার অভ্যাস গড়ুন। আর লেবুপানি পান করলে শরীর থাকবে আর্দ্র। দেহ হবে মেদমুক্ত।

ব্যায়ামাগারে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের শরীরচর্চা করা যায়। তবে সময়ে অভাবে অনেকেরই সম্ভব হয় না। তাই মেদ ঝরাতে নিয়মিত সকালে হাঁটতে যান, শরীর আর্দ্র রাখতে লেবুর রস পান করুন এবং সুস্থ থাকতে প্রতিদিন হালকা ব্যায়াম করুন। মেদহীন শরীর পাওয়ার কয়েকটি পন্থার জেনে নিন-

* মেদহীন পেটের জন্য শরীরের মধ্যভাগ দৃঢ় করুন। দিনের বেশিরভাগ সময় পেট দৃঢ় করুন এবং ফলাফল দেখুন, কাপড় অনেকটাই ঢিলে হয়ে যাবে। নিঃশ্বাস নেওয়া ও কথা বলার সময় পেট ৩০ শতাংশ ভাঁজ করুন। পেট সুন্দর রাখতে সারা দিন এ কাজ চালিয়ে যান।

* যদি মেদহীন শরীর চান তা হলে কেবল পেটের জন্য নয় বরং সারা শরীরের জন্য কিছু নিয়ম মেনে চলুন। সাধারণ ব্যায়াম যেমন- শরীর বাঁকানো, পুশ-আপ, পুল-আপ, হাত সামনে ও দুই পাশে ছড়িয়ে বুক প্রশস্ত করা এবং উঠবস ব্যায়াম নিজেই করা যায়। ১৫ বার করে এই ব্যায়ামের তিন সেটের পুনরাবৃত্তি করুন। তবে কোনো ভাবেই পেট দৃঢ় করার ব্যায়াম ভুললে চলবে না। কারণ এটা মেদহীন পেট পাওয়ার মূল চাবিকাঠি।

* সকালে ৩০ মিনিট হাঁটা আপনার জীবন বদলে দিতে পারে। শরীরের সংযোগস্থল, হৃদয় সুস্থ রাখতে সকালে হাঁটা জরুরি এবং সকালের সজীব বাতাস সারাদিন আপনার স্নায়ু শান্ত করতে, মেজাজ ভালো রাখতে এবং শক্তিশালী ও ইতিবাচক মনোভাব ধরে রাখতে সাহায্য করে। তবে অবশ্যই পেট দৃঢ় করতে ভুলবেন না। হাঁটার সময়ও এ ব্যায়াম করুন।

* স্বাস্থ্যকর মন আপনাকে শান্ত রাখবে এবং এমনকি কঠিন সময়েও আপনাকে সুস্থ রাখবে। চোখ বন্ধ করে ১০ থেকে ১৫ মিনিট কোমল গান শুনুন। উজ্জ্বল ত্বক পেতে নিয়মিত নিয়মিত এই কাজ করুন এবং এটা আপনার স্বাস্থ্য ভালো রাখতেও সাহায্য করবে।

* শরীরের আর্দ্রতা ধরে রাখতে প্রচুর পরিমাণে লেবু-পানি পান করুন।

* প্রচুর পরিমাণে সবুজ সবজি, মৌসুমি ও বেরিজাতীয় ফল খান।

* বাতাস চলাচলের জন্য ঢিলেঢালা পোশাক পরুন, এটা আপনার বাড়তি মেদ লুকাতেও সাহায্য করবে।

* তাপমাত্রার পরিবর্তনে নানা রোগের সূত্রপাত ঘটায়। তাই রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা ভালো হওয়া জরুরি। সবজি ও ফলের স্মূদি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এবং এগুলো উচ্চ ভিটামিন ও খনিজ সমৃদ্ধ যা রোগ প্রতিরোধ করে।

* ত্বকের জন্য ভিটামিন এ খুব গুরুত্বপূর্ণ। শীতের সবজি উচ্চ বিটাক্যারোটিন সমৃদ্ধ যা শরীরে ভিটামিন এ’য়ের কাজ করে। প্রচুর সবুজ পাতাবহুল সবজি, গাজর, বিটরুট এবং গ্রীষ্মকালে মূলভিত্তিক সবজি খান।   

এবিএন/সাদিক/জসিম