ena
maisha
bioMed
ব্রেকিং নিউজ

ধুনটে বেইলী ব্রিজের পাটাতনে ফাটল

ধুনট (বগুড়া), ১৭ মে, এবিনিউজ : বগুড়ার ধুনট পৌর এলাকার পশ্চিমভরনশাহী বেইলী ব্রিজের পাটাতন দেবে গিয়ে ফাটল দেখা দিয়েছে। কিন্তু তারপরও ওই ব্রিজের ওপর দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই জনসাধারণসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করছে। এতে যে কোনো মুহূর্তে দুর্ঘটনার আশংকা করছে স্থানীয়রা।

জানা গেছে, সড়ক ও জনপথ বিভাগের তত্বাবধায়নে ১৯৯২ সালে ধুনট-শেরপুর সড়কের পশ্চিম ভরনশাহী এলাকায় ১টি, মাঠপাড়া এলাকায় ১টি, শেরপুর উপজেলার শালফা এলাকায় ২টি ও শুবলি এলাকায় ১টি স্টিলের বেইলী ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। ব্রিজগুলো নির্মাণের ফলে ধুনট-কাজিপুরসহ কয়েকটি উপজেলার সাথে যোগাযোগের সেতু বন্ধন তৈরী হয়।

কিন্তু বর্তমানে ধুনট-শেরপুর সড়কের ওই পাঁচটি বেইলী ব্রিজই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। তন্মধ্যে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে ধুনটের মাঠপাড়া ও পশ্চিম ভরনশাহী বেইলী ব্রিজ। গত ৫ এপ্রিল মাঠপাড়া বেইলী ব্রিজটির একাংশ ভেঙ্গে পাথর বোঝাই ট্রাক খাদে পড়ে চালক সহ তিন জন আহত হয়। পরবর্তীতে সড়ক ও জনপদ বিভাগ ব্রিজটির ভাঙ্গা অংশ খুলে আরেকটি পুরাতন বেইলী ব্রিজ পুনস্থান করলেও ব্রিজটির অপরঅংশ ঝুঁকিপূর্ণই থেকে যায়।

ধুনট-শেরপুর সড়কের ট্রাক চালক আবুল কালাম জানান, ধুনট-শেরপুরের এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন কয়েক হাজার যাহবাহন চলাচল করে। তবে অতিরিক্ত পাথর বোঝাই ট্রাক সহ ভারি যাহবাহন চলাচলের কারনে এ জনপদের জনগুরুত্বপূর্ণ ধুনট-শেরপুর সড়কের পাঁচটি স্টিলের ব্রিজই ঝুকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। মাঝেমধ্যে ওই সকল ব্রিজের পাটাতন খুলে বা ভেঙে গেলে জোড়াতালি দিয়েই মেরামত করা হয়।

এতে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশংকা রয়েছে। কিন্তু তারপরও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পাশ্ববর্তী কয়েকটি উপজেলার লাখো মানুষ ঝুঁকিপূর্ণ ওই ব্রিজগুলোর ওপর দিয়েই চলাচল করছে।

বগুড়া সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুজ্জামান বলেন, অনেক বছর আগে থেকেই স্টিলের বেইলী ব্রিজের ট্রামজাম ও স্টিল টেকিংসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। তাই জোড়াতালি দিয়েই ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজগুলো মেরামত করা হয়। পশ্চিমভরনশাহী এলাকার বেইলী ব্রিজটির পাটাতনে ফাটল ধরলে মেরামত করা হবে।

এবিএন/ইমরান হোসেন ইমন/জসিম/এমসি